সোমবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭


হ্যাকাররা বিশ্বের যেকোনো স্থানেরই হতে পারে : পুতিন


আমাদের অর্থনীতি :
04.06.2017

ডেস্ক রিপোর্ট : গত বছর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টায় যারা হ্যাকিং করেছে, তা বিশ্বের যেকোনো স্থানেরই হতে পারে। শুক্রবার এক সাক্ষাৎকারে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন একথা বলেন। এই অপতৎপরতার পেছনে রাশিয়ার হাত রয়েছে বলে মার্কিন গোয়েন্দাদের দাবির প্রতিও প্রশ্ন তোলেন তিনি। বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এমনটি জানা যাচ্ছে।  এনবিসি নিউজকে পুতিন বলেন, ‘ওই হ্যাকাররা যেকোনো প্রান্তেরই হতে পারে। তারা রাশিয়া, এশিয়া এমনকি আমেরিকা বা ল্যাটিন আমেরিকারও হতে পারে।’ ‘নিজেরাই অপকর্মটি করে চাতুর্যের সঙ্গে রাশিয়ার ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র এবং তারা খুব বাজেভাবে রাশিয়াকেই দুষছে’ এমন মন্তব্যও করেন তিনি। ফরাসী বার্তা সংস্থা

শুক্রবার সাক্ষাতকারটি আংশিকভাবে প্রকাশ করা হয়। রোববার এটি সম্পূর্ণ প্রচার করবে এনবিসি নিউজ। এতে তিনি এও বলেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে এই সাইবার হামলা এমনভাবে চালানো হয় যাতে করে এর উৎস রাশিয়া বলে মনে করা হয়। অত্যন্ত দক্ষতা ও পেশাদারিত্বের সঙ্গে এটি করা হয়েছে।   মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো গত বছরের নির্বাচনী প্রচারণার সময় রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে ভোটারদের প্রভাবিত করতে হ্যাকিংয়ের নির্দেশ দেয়ার জন্য পুতিনকে অভিযুক্ত করেছে। ট্রাম্প মস্কোর সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেয়ার পর অভিযোগটি আনা হয়। পুতিন শুক্রবার সেন্ট পিটার্সবার্গে রাশিয়ার বার্ষিক অর্থনৈতিক ফোরামে মার্কিন নির্বাচনে মস্কোর হস্তক্ষেপ অভিযোগের তীব্র নিন্দা জানান। এসময় তিনি বলেন, দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়েই রুশ হ্যাকাররা গত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হ্যাকিংয়ে জড়িত থাকতে পারেন। তবে তাদের কেউই রাষ্ট্রের নির্দেশনায় এ ধরণের কাজে জড়িত হননি। সম্পাদনা : ইমরুল শাহেদ