সোমবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭


জলবায়ু সংরক্ষণে ভারত দায়বদ্ধ থাকবে : মোদি


আমাদের অর্থনীতি :
04.06.2017

New Delhi: Prime Minister Narendra Modi addressing at the launch of a new mobile app ‘BHIM’ to encourage e-transactions during the ”Digital Mela” at Talkatora Stadium in New Delhi on Friday. PTI Photo by Subhav Shukla (PTI12_30_2016_000126A)

ডেস্ক রিপোর্ট : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্যারিসে হওয়া জলবায়ু সংরক্ষণের চুক্তি মানতে অস্বীকার করলেও, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়ে দিলেন, ভারত জলবায়ু সংরক্ষণের বিষয়ে দায়বদ্ধ থাকবে। কার্বন কমানোর ক্ষেত্রেও উদ্যোগ নেবে ভারত। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে যাতে সুন্দর ও বিশুদ্ধ পৃথিবী উপহার দেওয়া যায়, সেই চেষ্টা করবে ভারত। ট্রাম্পকে তিনি সমর্থন করছেন না তার পদক্ষেপের বিরোধিতা করছেন, সে বিষয়ে কোনো জবাব না দিয়ে মোদি বলেছেন, ‘আমি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের পক্ষে। মানুষ প্রকৃতিকে শোষণ করতে পারে না।’ এবিপি

রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলনে জলবায়ু সংরক্ষণের পক্ষে কথা বলতে গিয়ে বেদের উল্লেখ করেছেন মোদি। তিনি বলেন, প্রকৃতিকে শোষণ করা অপরাধ। তবে মানুষ প্রকৃতিকে কাজে লাগাতে পারে। ভারতের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্কের কথা মাথায় রেখেই ট্রাম্পের পদক্ষেপ নিয়ে প্রশ্নের জবাব দেননি মোদি। তিনি বলেছেন, জার্মানিতেও একই প্রশ্ন করা হয়েছিল। তিনি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা ছাড়া অন্য কিছু ভাবছেন না। ভারত একটি দায়িত্বশীল দেশ। পরিবেশ রক্ষা ভারতের পুরনো প্রতিশ্রুতি।

প্যারিসে জলবায়ু সংরক্ষণ নিয়ে যে চুক্তি হয়েছিল, তাতে সম্মতি জানিয়েছিল ১৯০টি দেশ। কিন্তু এখন মার্কিন প্রেসিডেন্ট দাবি করেছেন, এই চুক্তিতে ভারত ও চীন অন্যায়ভাবে বেশি সুবিধা পাচ্ছে। সেই কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই চুক্তি মানবে না। মোদি অবশ্য জানিয়ে দিয়েছেন, কার্বন কমানোর লক্ষ্যে পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির উপর জোর দিচ্ছে ভারত। ২০২২ সালের মধ্যে ১৭৫ গিগাওয়াট পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তির ব্যবস্থা করাই ভারতের লক্ষ্য। পরমাণু শক্তি ছাড়াও সৌরশক্তি, বায়ুশক্তি, জৈবশক্তি এবং জলবিদ্যুৎ ব্যবহার করতে চাইছে ভারত। ৪০ কোটি এলইডি বাল্ব বিলি করা হয়েছে। গত তিন বছরে পরিবেশ রক্ষা এবং বিদ্যুতের অপচয় রোধে উদ্যোগ নিয়েছে ভারত। সম্পাদনা : ইমরুল শাহেদ