বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » অফবিট » ট্রাম্প প্রশাসনের মতো বিভাজন, ইতিহাসে বিরল : স্টিভ বেনন


ট্রাম্প প্রশাসনের মতো বিভাজন, ইতিহাসে বিরল : স্টিভ বেনন


আমাদের অর্থনীতি :
22.08.2017

পরাগ মাঝি : দু’এক কথা বলে স্টিভ বেননের ভূয়সী প্রশংসা করে তাকে চাকরী থেকেই বরখাস্ত করে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বলাই বাহুল্য যে, এই মুহুর্তে ট্রাম্প-বেনন সম্পর্ক সাপে-নেউলে পরিনত হতে যাচ্ছে। উপদেষ্টার পদ থেকে ছাটাইয়ের পর ট্রাম্পের পতন অবশ্যম্ভাবি বলে মন্তব্য করেছিলেন বেনন। এবার জানালেন অন্দরের কথাও। বেনন বলেছেন, ‘ট্রাম্প প্রশাসনে যে ভাঙচুর এবং বিভাজন শুরু হয়েছে তা ইতিহাসেই বিরল।’

হোয়াইট হাউস থেকে বিতাড়িত হওয়ার পর বেনন আবারও তার পুরনো কর্মস্থল ব্রেইবার্ট পত্রিকায় ফিরে গেছেন। বলা হয়ে থাকে এই ব্রেইবার্টের মাধ্যমেই ট্রাম্পের পক্ষে ‘ফেক নিউজ লড়াই’ চালিয়েছিলেন বেনন। পত্রিকাটির ভূমিকা এখন পুরোপুরি ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। হোয়াইট হাউস প্রশাসনের একদল মনে করছেন, বেননের এই বিরোধী অবস্থান ট্রাম্পের জন্য সুখকর নাও হতে পারে। তবে, ট্রাম্প তার নতুন প্রতিদ্ব›দ্বীকে একেবারে উড়িয়ে দিয়েছেন। ব্রেইবার্ট সম্পাদক হিসেবে বেননকে শুভেচ্ছা জানিয়ে মজা করে বলেছেন, ‘ফেক নিউজের দুনিয়ায় এমন প্রতিদ্ব›দ্বী পাওয়া মন্দ নয়।’

ধারণা করা হয়, ট্রাম্পের বিশ্বস্থ সহযোগী বেননের চাকরীচ্যুতির মূলে রয়েছেন ট্রাম্প কন্যা ইভানকা ও তার স্বামী ডেরার্ড কুশনার।

উল্লেখ্য, গত ৮ মাসে শীর্ষ ৫ কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করেছেন ট্রাম্প। বেনন ছাড়া চাকরীচ্যুত অন্যরা হলেন, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন, হোয়াইট হাউসের মিডিয়া সচিব শন স্পাইসার, চিফ অব স্টাফ রেন্স প্রিবাস এবং কমিউনিকেশন্স ডিরেক্টর স্কারামুচি। দ্য হিল অবলম্বণে