সোমবার ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭


বাংলা ভাষায় কালজয়ী ৯টি সীরাতগ্রন্থ


আমাদের অর্থনীতি :
01.12.2017

আবদুল্লাহ মারুফ

রহমতের নবী মুহাম্মদ (সা.)। আল্লাহপাক তাঁকে দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন সর্বোত্তম আদর্শ দিয়ে। রোল মডেল হিসেবে। তাঁকে অনুসরণ ও অনুকরণের মধ্যেই রয়েছে ইহলৌকিক ও পরলৌকিক সফলতা। ইসলামি জীবন গঠনে নবীজির সীরাত সম্পর্কে অবগত হওয়া অপরিহার্য। নবীজির প্রদর্শিত পথ ব্যতিরেকে সঠিক ইসলামের পথে চলা অসম্ভব। এজন্য সীরাত পড়তে হয়। জানতে হয়। এবং তার উপর আমল করতে হয়। পৃথিবীর বিভিন্ন ভাষায় অগণিত পুস্তক রচিত হয়েছে সীরাতকে উপজীব্য করে। আরবি ভাষা ও সাহিত্য সমৃদ্ধ হয়েছে এই সীরাতকে ঘিরেই। অনেক অমুসলিম লেখকও নিজের সবটুকুন প্রেম-ভালোবাসা ও আবেগ ঢেলে রচনা করেছেন সীরাতগ্রন্থ। বইপত্র। বাদ নেই আমাদের মাতৃভাষা বাংলাটাও। আমাদের মাতৃভাষা বাংলায়ও রচিত-অনূদিত হয়েছে কালজয়ী অনেক সীরাতগ্রন্থ। নিম্নে বাংলা ভাষায় রচিত প্রসিদ্ধ কিছু গ্রন্থের পরিচিতি তুলে ধরা হলো,

আর রাহিকুল মাখতুম

মূল : শাফিউর রহমান আল-মোবারকপুরী

অনুবাদ: খাদিজা আক্তার রেজায়ি

প্রকাশক: আল কোরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স

‘আর-রাহীকুল মাখতূম’ হুজুর সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর অনন্য একটি জীবনীগ্রন্থ। ১৯৭৯ সালে রাবেতায়ে আলাম আল ইসলামি কর্তৃক আয়োজিত রাসূলের জীবনভিত্তিক সীরাতগ্রন্থ প্রতিযোগিতায় ১১৮৭ টি পান্ডুলিপির মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করে এ গ্রন্থটি। রিয়াদভিত্তিক প্রতিষ্ঠান দ্য কুরআন পাবলিশিং এন্ড প্রিন্টিং এর তত্ত্বাবধানে এর সম্পাদনা সম্পন্ন হয়। ১৯৯৯ সালে খাদিজা আখতার রেজায়ী বইটির বাংলা অনুবাদ করেন এবং আল কুরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স বইটি প্রকাশ করে।

নবীয়ে রহমত

মূল : সাইয়েদ আবুল হাসান আলী নদভী

অনুবাদ: আবু সাঈদ মুহাম্মদ ওমর আলী

প্রকাশক: মুহাম্মদ ব্রাদার্স ও মাকতাবাতুল হেরা

‘নবীয়ে রহমত’ আলি মিয়া নদাভীর এক অনবদ্য গ্রন্থ। তিনি গতানুগতিকতা এড়িয়ে নিজস্ব ভঙিমায় এতে উপস্থাপন করেছেন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের অমীয় জীবন ও নবুওয়াত। তাঁর চমৎকার রচনাশৈলীর সার্থক অনুবাদ করেছেন জনাব আবু সাঈদ মুহাম্মদ ওমর আলী। আগ্রহী পাঠকগণ বইটি পড়লে অনেক কিছু সম্পর্কে জানতে পারবেন আশা করা যায়।

সীরাতে মোস্তফা

লেখক: ইদ্রিস কান্দলভি রহ.

প্রকাশক : মদিনা পাবলিকেশন্স।

সীরাতে মোস্তফা-সিরাত বিষয়ক একটি অমূল্য গ্রন্থ। নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পুরো জীবনটাই এতে সুবিন্যস্তভাবে তুলে ধরা হয়েছে। আগ্রহী পাঠক বইটি পড়ে দেখতে পারেন।

বিশ্বনবী

লেখক: গোলাম মোস্তফা

প্রকাশক: আহমদ পাবলিশিং হাউজ

বাংলাভাষায় সীরাতের মৌলিক সিরাতগ্রন্থ-বিশ্বনবী। কবি গোলাম মোস্তফা রচিত ‘বিশ্বনবী’ সীরাতগ্রন্থটি বোদ্ধা পাঠকদের মনযোগ কেড়েছে বহু আগেই। কালজয়ী ও কালোত্তীর্ণ হিসেবে বইটি সিরাত-পাঠক ও সংগ্রাহকের কাছে অতিপরিচিত একটি নাম। অনেক দিন যাবত বাংলা ভাষাভাসী পাঠকদের হৃদয়ে স্থায়ী আসন ঘেরে আছে ‘বিশ্বনবী’।

আসাহহুস সিয়ার

মূল: আবুল বারাকাত আব্দুর রউফ দানাপুরী

অনুবাদ: আ.ছ.ম. মাহমুদুল হাসান খান ও মাওলানা আব্দুল্লাহ বিন সাইদ জালালাবাদি

প্রকাশক: ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সীরাতের বিশুদ্ধ ও প্রামাণ্য একটি গ্রন্থ। নির্ভরযোগ্য হিসেবে এর সুনাম বহুদিনের। এটিও নিজের টেবিলে রাখা উচিত প্রতিটি সীরাত-পাঠকের।

মহানবীর জীবনচরিত

মূল : ড.মুহাম্মদ হুসাইন হায়কল

অনুবাদ : মাওলানা আব্দুল আওয়াল

প্রকাশক: ইসলামিক ফাউন্ডেশন

মূল গ্রন্থ আরবি। প্রায় বিশটি ভাষায় এর অনুবাদ হয়েছে। প্রথম ১০০ পৃষ্ঠাজুড়ে পাশ্চাত্যে লেখকদের চক্রান্ত, সিরাতচর্চার নামে তদের দুরভিসন্ধি বাস্তবায়নের অপচেষ্টা এবং তার মুকাবেলায় মুসলিম লেখকদের করণীয় নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করা হয়েছে। নবীজীবনের অলৌলিক ঘটনাবলী কুরআন-হাদিসের আলোকে বর্ণনা করা হয়েছে এতে। তাছাড়া খুব সহজ সরল প্রাঞ্জল ভাষায় বইটিতে নবীজির রাজনৈতিক দূরদর্শীতা ও আরবের মাটিতে ধীরেধীরে ইসলাম প্রতিষ্ঠার প্রেক্ষাপট খুব সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। অবশ্যই পড়ার মত একটি সীরাতগ্রন্থ।

হযরত মুহাম্মদ সা. সমকালীন পরিবেশ ও জীবন

এই বইটি ‘ইসলামিক ইউনিস্টিউট বাংলাদেশ’ থেকে প্রকাশ করেছেন সৈয়দ এ.কে কামরুল বারী।১০০৮ পৃষ্ঠার বিশাল গ্রন্থটি ১৪ টি অধ্যায়ে বিভক্ত।১৯৯৮ সালে ‘জাতীয় সিরাত কমিটি’ কর্তৃক ১০ বছরে প্রকাশিত মৌলিক গ্রন্থগুলোর মধ্যে এটি পুরস্কৃত হয়। পাঠক! ইচ্ছে করলে এটিও সংগ্রহ করতে পারেন।

সীরাতে খাতামুল আম্বিয়া

মূল : মুফতী মুহাম্মদ শফী রহ.

উর্দুভাষায় রচিত এ বইটির বেশকিছু বাঙ্গানুবাদ হয়েছে। বিভিন্ন প্রকাশনী থেকে বেরোনো বইগুলো বাজারে পাওয়া যায়।এ বইটির বৈশিষ্ট্য হলো, অত্যন্ত সংক্ষিপ্তভাবে রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবনীকে বর্ণনা করা হয়েছে এতে। এক বসায় মহানবীর গোটা জীবনকে জানার মহোত্তম গ্রন্থ এটি। সংক্ষিপ্তাকারে হলেও যারা নবীজির সীরাতকে জানতে চান তাদের জন্য এটি সর্বশ্রেষ্ঠ।

তোমাকে ভালোবাসি হে নবী

মূল : গুরুদত্ব সিং

অনুবাদ : আবু তাহের মিসবাহ

প্রকাশক : দারুল কলম

এ বইটিতে যদিও সীরাতের ধারাবাহিক কোন বর্ণনা নেই। কিন্তু নবীপ্রেম কি, কেমন হওয়া উচিত— বইটি না পড়লে হয়ত অজানাই থেকে যেতো। একজন হিন্দুধর্মালম্বি হওয়া সত্ত্বেও লেখক যে প্রেম, ভালোবাসা, শ্রদ্ধা আর আবেগ দিলে বইটি লেখেছেন, এককথায় অপূর্ব! আশেকে নবী হিসেবে প্রত্যেকের উচিত ইশকের দরিয়ার ঢেউ জাগানোর জন্য একবার হলেও বইটি অধ্যয়ন করা। আবু তাহের মিসবাহ সাহেবের প্রাঞ্জল অনুবাদে বইটিকে আরও শ্রেষ্ঠত্ব ও অনন্যতা দিয়েছে। সীরাতপ্রেমীদের জন্য অবশ্যই বইটি পাঠ করা দরকার।