রবিবার ২১ জানুয়ারী ২০১৮


ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল নিয়ে কিছু পরিকল্পনা


আমাদের অর্থনীতি :
13.01.2018

সাহাদৎ রানা

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল নিয়ে আমার বেশকিছু পরিকল্পনা আছে। তবে সবার আগে আমি এই সংগঠনকে নিবন্ধন করতে চাই। এটা কেবল সব সদস্যের দীর্ঘদিনের দাবিই নয়, বরং একটি সংগঠনের প্রাতিষ্ঠানিক বৈধতা এবং নৈতিক ভিত্তির জন্য নিবন্ধন জরুরি। সংগঠনের জন্য বড় পরিসরের একটি স্থায়ী অফিস নিতে চাই। পাশাপাশি সংগঠনের কল্যাণ তহবিলকে সমৃদ্ধ করতে চাই। যাতে অস্বচ্ছল সদস্যদের জন্য কিছু করা সম্ভব হয়। সংগঠনের ওয়েবসাইটটি পুনরায় চালু করাটা আসলে সময়ের দাবি। ফেব্রুয়ারিতে সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজন করব। এছাড়াও রুটিন মাফিক ফ্যামিলি ডে, সদস্যদের সন্তানদের বৃত্তি প্রদান, ইফতার মাহফিল ইত্যাদি কর্মসূচি তো আছেই। আমার অন্যতম লক্ষ্য সংগঠনের সদস্যদের পেশাগত উন্নয়ন। সেজন্য বছরব্যাপী বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করব। সবশেষে অর্থাৎ মেয়াদ শেষে একটি সফল বার্ষিক সাধারণ সভার মাধ্যমে নির্ধারিত সময়ে নির্বাচন আয়োজন করে ক্ষমতা হস্তান্তর করা।

সহজ করে বললে, আমার প্রাণের সংগঠনকে এমন একটি গ্রহণযোগ্য জায়গায় উন্নীত করতে চাই, যাতে সবাই এই সংগঠনকে সমীহ করে। আলাদাভাবে গুরুত্ব ও মর্যাদা দেয়। সহজ কথায়, যে লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে আমাদের অগ্রজরা এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, তার যথাযথ বাস্তবায়ন করতে চাই। অন্য বেশ কিছু সাংবাদিক সংগঠন সাংবাদিকদের আবাসন বিষয়ে কাজ করছেন। কিন্তু ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল সেভাবে দৃশ্যমান কোনো কাজ শুরুই করেনি। তবে আমার ইচ্ছে আছে, আবাসন বিষয়ে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের। সাংবাদিকদের আবাসনের উদ্যোগ, যার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে এবং সাড়াও মিলবে বলে আমি মনে করি।

সকল সদস্যই এই সংগঠনের চালিকাশক্তি। তাই সবাই যার যার অবস্থান থেকে পরামর্শ দিয়ে সহায়তা করলে এবং প্রয়োজনীয় অবদান রাখলে সংগঠনকে শক্তিশালী করা বাস্তবিকই সম্ভব।

লেখক : সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল

সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ