রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮


সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীদের অর্থনৈতিক জোনে বিনিয়োগের আহবান বাণিজ্যমন্ত্রীর


আমাদের অর্থনীতি :
14.02.2018

জাফর আহমদ : বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশ সরকারের নিয়োগবান্ধব নীতি ও পরিবেশ বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করছে। বিভিন্ন দেশের বিনিয়োগকারীগণ বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে শুরু করেছে। বাংলাদেশে এখন পর্যাপ্ত দক্ষ জনশক্তি রয়েছে, এখানে কম খরচে বিশ^মানের পণ্য উৎপাদন করা সম্ভব। গতকাল সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার আয়োজিত ‘সেমিনার টু প্রমোট ট্রেড এন্ড কমার্স বিটুইন বাংলাদেশ এন্ড সিঙ্গাপুর’ শীর্ষক বিজনেস সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
তাফায়েল আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোনে সিঙ্গাপুরের বিনিয়োগকারীগণ বিনিয়োগ করতে এগিয়ে এলে বাংলাদেশ সরকার প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোতিা প্রদান করবে। বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষায় সরকার আইন প্রনয়ন করে সুরক্ষা দিয়েছে। এখন বাংলাদেশে যে কোন বিনিয়োগকারী শতভাগ বিনিয়োগ করতে পারে, প্রয়োজনে লাভসহ সমুদয় অর্থ ফিরিয়ে নিতে পারে বিনিয়োগকারী।
মন্ত্রী বলেন, সরকার রপ্তানি বাণিজ্য প্রসারে বিভিন্ন দেশের সাথে এফটিএ স্বাক্ষর করছে। প্রয়োজন হলে বাংলাদেশ সিঙ্গাপুরের সাথে এফটিএ করার চিন্তা করবে। তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুঁড়ি বা দরিদ্র দেশের রোল মডেল নয়। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। ২০২১ সালের মধ্যে রপ্তানির পরিমান দাঁড়াবে ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ব্যাংকে বৈদেশিক মূদ্রার রিজার্ভ ৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি, রেমিটেন্স আসছে প্রায় ১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার, সিঙ্গাপুরের প্রেসিডেন্ট মো. শহিদুজ্জামান-এর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. মোস্তাফিজুর রহমান। সম্পাদনা : ইয়াছির আরাফাত