বুধবার ২৩ মে ২০১৮


সুষ্ঠু সমাজ বিনির্মাণে সুস্থ মস্তিষ্ক একান্তই কাম্য


আমাদের অর্থনীতি :
12.05.2018

 

 

মেহেদী হাসান

 

মাদকাসক্তি আমাদের দেশের শিক্ষাঙ্গন যথা স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ব্যাপকভাবে বিস্তার লাভ করেছে। মাদকের ক্ষতি মাদকের ভয়াবহতা আমাদের সমাজকে কিভাবে গ্রাস করেছে, তা দৈনন্দিন পত্রিকার পাতা মেললেই বুঝে আসে । মাদকের দ্বারা সমাজ দ্রুত ক্ষতির দিকে এগুচ্ছে। গত ১৮ আগষ্ট একটি জাতীয় দৈনিকের একটি সংবাদে দেখা যায়, মাদাকাসক্ত কিশোর ওয়াজির (বয়স ১৫) নিজের মা-বাবার সামনেই আত্মহত্যা করে । আসলে ওয়াজির আত্মহত্যা করেনি, তাকে হত্যা করা হয়েছে। তাকে হত্যা করেছে সর্বনাশা মাদক এবং এর সাথে জড়িত গোষ্ঠি। কিছুদিন আগে মাদাকাসক্ত এক তরুণের অত্যাচার সইতে না পেরে তাকে ভাড়াটিয়া খুনী দিয়ে খুন করায় তার আপন গর্ভধাররিণী মা। আমাদের সমাজের জন্য এ এক বিরাট অসহনীয় সংকেত। মাদকের ভয়াল গ্রাস থেকে সমাজের কোন শ্রেণীই আজ নিরাপদ নয়। মাদক ব্যবসায়ী এবং এর সাথে জড়িত গোষ্ঠীদের এখনই প্রতিরোধ করা না গেলে একদিন পুরো দেশ এদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়বে। আধুনিক বিশ্বে এ সভ্যতা চরমভাবে বিপর্যস্ত হয়েছে। অথচ ইসলাম চৌদ্দশ বছর পূর্বেই সমাজকে সুসভ্য করার জন্য মাদক নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। একটি সুষ্ঠু সমাজ ব্যবস্থা বিনির্মাণের জন্য সুস্থ মস্তিস্ক একান্ত ভাবেই কাম্য। মাদক মানুষের বিবেক-বুদ্ধিকে ধুলিস্যাৎ করে দেয়। ফলে ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্র তথা গোটামানব সমাজের অকল্যাণ ও অমঙ্গল সাধিত হয়। আজ মাদকাসক্তি বিশ্ব মানবতার জন্য এক ভয়াবহ অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটি অসংখ্য পাপকার্য, অপরাধ ও অসামাজিক কর্মের মূল। মাদকের ক্ষতিকর দিকগুলো লক্ষ্য করে এর প্রতিকারের জন্য বর্তমান বিশ্বে বহু দেশ ও জাতি এগিয়ে আসছে। আমাদের দেশেরও সকলকে এর প্রতিকার করার জন্যে কাজ করতে হবে ।

পরিচিতি : ছাত্র, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি / মতামত গ্রহণ : নৌশিন আহম্মেদ মনিরা/ সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ