রবিবার ২৪ জুন ২০১৮


বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিকদের অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা


আমাদের অর্থনীতি :
22.05.2018

সোহেল সানী, পার্বতীপুর প্রতিনিধি (দিনাজপুর) : ৯দিনেও ১৩ দফা দাবি না মানায় দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির আন্দোলনরত শ্রমিক-কর্মচারীরা আজ থেকে খনি অবরোধের কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি রবিউল ইসলাম গতকাল  বেলা ১টায় খনি গেটে আয়োজিত শ্রমিক সমাবেশে এ অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, সোমবার রাত ৮টার মধ্যে আমাদের ন্যায়সঙ্গত ১৩ দফা দাবীর ব্যাপারে খনি কর্তৃপক্ষ যদি কোন ইতিবাচক উদ্যোগ গ্রহণ না করেন তাহলে মঙ্গলবার সকাল থেকে গোটা খনি এলাকা অবরোধ করা হবে। কর্মসূচি চলাকালে কোন কর্মকর্তাকে খনির বাইরে থেকে ভেতরে এবং ভেতর থেকে বাইরে যেতে দেয়া হবে না। তিনি বলেন, শুরু থেকে আমরা আমাদের ১৩ দফা দাবী নিয়ে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছিলাম। শ্রমিক ইউনিয়ন সভাপতি আরো বলেন, আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। স্থানীয় এমপি ও সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমানের উপস্থিতি ছাড়া শ্রমিকরা কোন সমঝোতা বৈঠকে অংশ নেবে না বলে তিনি ঘোষণা দেন। এর আগে সকাল ১১টায় খনি শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি রবিউল ইসলাম ও ক্ষতিগ্রস্থ ২০ গ্রাম সমন্বয় কমিটির আহবায়ক মিজানুর রহমান মিজানের নেতৃত্বে এক বিক্ষোভ মিছিল খনির চারপাশের সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে খনির শ্রমিক-কর্মচারী ও কয়েক হাজার গ্রামবাসী যোগ দেন।

শ্রমিকদের দাবির ব্যপারে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী হাবিব উদ্দীন আহাম্মদ বলেন, এনিয়ে গত রোববার সচিবালয়ে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী, মন্ত্রনালয়ের সচিব ও পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যানের মধ্যে বৈঠক হয়েছে। এর আগে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সরকারের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে টেলিফোনে মতবিনিময় করা হয়। এতে সিদ্ধান্ত হয়েছে আগে শ্রমিকরা কাজে যোগদান করবে। তারপর জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয়ের একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন প্রতিনিধি দল বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি পরিদর্শনে গিয়ে শ্রমিকদের দাবী-দাওয়া নিয়ে সকল পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন।